নাগরপুরে বিশাল ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত

0
492
ঈদের জামাত এর চিত্র

নাগরপুর প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলায় বিশাল ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
নাগরপুরে ঐতিহাসিক পানান বাজার সংলগ্ন ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিশাল ঈদ জামাত। এই জামাতে একসঙ্গে হাজাররো মুসল্লি নামাজ আদায় করেছেন বলে দাবি আয়োজকদের। প্রখর রোদ আর তীব্র দাবদাহেও নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তাব্যবস্থায় সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে বৃহৎ এই জামাতে নামাজ আদায় করতে পেরে খুশি বিভিন্ন স্থান থেকে আগত মুসল্লিরা।

বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) ঈদগাহ মিনার ও ময়দানে এবার ঈদের নামাজ আদায় করতে এসেছিলেন বিভিন্ন এলাকা থেকে মুসল্লিরা।
এই ঈদগাহে বৃহৎ পরিসরে ঈদের জামাত শুরু হয় কবে থেকে তা কেউই বলতে পারে না । কিন্তু মাঝখানে করোনা পরিস্থিতির জন্য দুই বছর এই ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হয়নি ঈদের জামাত। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবং সকাল ১১টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ায় এ যাবৎকালের সর্বোচ্চসংখ্যক মুসল্লি নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় ঈদুল ফিতরের জামাত।

তীব্র গরম উপেক্ষা করে সকাল ৯টা থেকেই মুসল্লিরা সমবেত হতে শুরু করেন এই ঈদগাহে। ঠিক ১১টায় শুরু হয় নামাজ। এখানে ইমামতি করেন মেহেদীপুর দরবার শরীফের পীরসাহেব আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল কাদের খান । নামাজ শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহসহ সকলের জন্য শান্তি কামনা করে করা হয় মোনাজাত।
বৃহৎ এই জামাতে অংশ নেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের জনতা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র নেতা মিজানুর রহমান সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, রমজানে আমরা যে তাকওয়া অর্জন করেছি, তা হৃদয়ে ধারণ করতে হবে।
বাড়ীগ্রাম স্কুল এন্ড কলেজ এর শিক্ষক মকবুল হোসেন বলেন, একসঙ্গে হাজারো ধর্মপ্রাণ মুসল্লি শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় করেছে এই জামাতে। সফলভাবে ঈদের জামাত সম্পন্ন হওয়ায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।
এই জামাতে নামাজ আদায় করতে আসেন দূর-দূরান্ত থেকে আগত মুসল্লিরা।
তারা বলেন, এত বড় মাঠ ও এত মুসল্লিকে সঙ্গে নিয়ে এটাই তাদের প্রথম নামাজ। এই অনুভূতি কাউকে বোঝানোর নয়। তারা এখানে নামাজ আদায় করতে পেরে এবং ব্যবস্থাপনা দেখে খুব খুশি।
এখানে নামাজ আদায় করে একই রকম অনুভূতি প্রকাশ করেন গোপালপুর থেকে আসা জুয়েল চৌধুরী

তিনি বলেন, এই উপজেলার বড় জামাতের কথা শুনে ঈদের নামাজ আদায় করতে এসেছি। এটি আসলেই বৃহৎ জামাত। এই বড় জামাতে নামাজ আদায় করেছি বড় সওয়াবের আশায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here